পদ্মা সেতুর উদ্বোধন আমন্ত্রণ পেলেন বিএনপির ৭ নেতা

পদ্মা সেতুর উদ্বোধন আমন্ত্রণ পেলেন বিএনপির ৭ নেতা

নিজস্ব প্রতিবেদক: পদ্মা সেতুর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অংশ নিতে বিএনপির সাত নেতাকে আমন্ত্রণ জানিয়েছে সরকারের সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের সেতু বিভাগ। বুধবার বেলা ১১টার দিকে সেতু বিভাগের উপসচিব দুলাল চন্দ্র সূত্রধর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে গিয়ে এ আমন্ত্রণ দেন। দলের জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আমন্ত্রণপত্র গ্রহণ করেন। দুলাল চন্দ্র সূত্রধর বুধবার এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। 

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন, মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, আবদুল মঈন খান, নজরুল ইসলাম খান ও ভাইস চেয়ারম্যান হাফিজ উদ্দিন আহমেদ এই সাতজনের নামে আমন্ত্রণপত্র দেওয়া হয়েছে।

দুলাল চন্দ্র সূত্রধর বলেন, ‘আমার ওপর দায়িত্ব ছিল সাত নেতাকে আমন্ত্রণপত্র পৌঁছে দেওয়ার। আমি দিয়েছি। আর কোনো নেতাকে আমন্ত্রণ জানানো হবে কি না, তা জানি না।’ বিএনপির কার্যালয়ে এ সময় রুহুল কবির রিজভী ছাড়াও দলীয় নেতা আবুল খায়ের ভূঁইয়া উপস্থিত ছিলেন। 

দুলাল চন্দ্র সূত্রধর বলেন, ‘তাঁরা আমন্ত্রণপত্র গ্রহণ করেছেন। আশা করি তাঁরা আসবেন।’ ২৫ জুন পদ্মা সেতুর উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ উপলক্ষে প্রথমে মাওয়ায় সুধী সমাবেশে অংশ নেবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ সমাবেশের আয়োজন করেছে সেতু বিভাগ। এরপর তিনি টোল দিয়ে সেতু এলাকায় প্রবেশ করবেন।

সেখানে উদ্বোধনী ফলক উন্মোচন করবেন। পরে শেখ হাসিনা গাড়ি দিয়ে সেতু পার হয়ে জাজিরায় আরেকবার ফলক উন্মোচন করবেন। তারপর বিকেলে মাদারীপুরের শিবচরে জনসভায় অংশ নেবেন। ওই সমাবেশের আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে ১০ লাখ লোকের সমাগম ঘটানোর পরিকল্পনা করা হয়েছে।

এদিকে পদ্মা সেতুর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিএনপির ৭ নেতাকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। এনিয়ে দলটির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী সাংবাদিকদের কাছে বলেন, ‘আমরা এই কার্ড রিসিভ করিনি, কিছু না। আমি অফিসে বসে ছিলাম, জাস্ট তারা দিয়ে গেছেন, বাস।’

বুধবার সকাল ১১টার দিকে সেতু বিভাগের উপ সচিব দুলাল চন্দ্র সূত্রধর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে গিয়ে আমন্ত্রণপত্র দেওয়ার পর সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, সেতু বিভাগের কর্মকর্তা দিয়ে গেছেন। এটা নিয়ে আমি কোনো মন্তব্য করতে চাই না। এর সঙ্গে আমাদের কোনো সম্পর্ক নাই। ’

দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন, মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, আবদুল মঈন খান, নজরুল ইসলাম থান ও ভাইস চেয়ারম্যান হাফিজ উদ্দিন আহমেদণ্ড এই সাতজনের নামে আমন্ত্রণ কার্ড দেওয়া হয়।

বিআলো/শিলি